আসলেই কি থাকবে না কোনো সিম কার্ড বা মেমোরি কার্ড?

সিম কার্ড

হেডলাইন থেকে অবাক হচ্ছেন? অবাক হওয়ার কিছু নেই। আসুন বিস্তারিত খোলে বলছি এখনি, তাহলে চলুন একটু পিছনে থাকায়। আজ থেকে প্রায় ৪০ বছর আগে ১৯৭৩ সালে মার্টিন কপার নামক এক ভদ্রলোক প্রথম মোবাইল ফোন আবিষ্কার করেছিলেন,তখনকার মোবাইলফোন গুলো এত বেশী পাওয়ারফুল ছিলো না, এমন কি তখন সিম কার্ড বা মেমোরি কার্ড মোবাইলে ব্যবহার করার যোগ্য ছিলো না।

শুধু মাত্র কম্পিটারের হার্ড ড্রাইভ হিসেবে ব্যবহার করা যেত মেমোরি গুলো কে, কিন্তু কালের পরিবর্তনের সাথে সাথে মেমোরি গুলো অনেক ছোট হয়ে এসেছে, ফলে আমরা আমাদের ক্যামেরা/মোবাইলে ব্যবহার করতে পারছি। যদিও আমাদের প্রত্যকের ল্যাপটপ/ কম্পিউটারেও মেমোরি রয়েছে, যা মূলত আমরা হার্ড ড্রাইভ হিসেবে চিনি।

যায় হউক, এবার আশা কেনো থাকবে না সিম কার্ড?

১৯৯১ সালে প্রথম সিম কার্ড আবিষ্কার হয়, তখন একটি সিম কার্ড ছিলো বর্তমান সময়ের ক্রেডিট কার্ড এর ন্যায়। কিন্তু এর পরে সেটি ধীরে ধীরে ছোট হতে থাকে, যেমন এখন আমরা ন্যানো সিম দেখতে পায়।

কিন্তু আমি কি জানেন যে একটি সময় কোনো ফিজিক্যাল সিম কার্ড থাকবে না?
জ্বি আপনি সঠিক শুনেছেন, থাকবে না কোনো ফিজিক্যাল সিম কার্ড, সেই দিন আর বেশি দূরে নয়, এর কারন হিসেবে বলতে পারি আপনারা অনেকেই জানেন যে eSIM পৃথিবীতে রয়েছে, এর মানে হলো শুধু মাত্র একটি নির্দিষ্ট অ্যাপ ব্যবহার করেই আপনি সিমের কাজ করতে পারছেন। ফলে আপনার ফোনে কোনো হার্ডকার্ড সিম প্রবেশ করার প্রয়োজন নেই। যেমনটা iPhone এর ক্ষেত্রে হচ্ছে, একটি হার্ডকার্ড সিম আরেকটি ভার্চুয়াল সিম কার্ড। দুটি সিম দিয়ে সমান কাজ করা যাচ্ছে।

Virtual SIM বা eSIM এর মানে হচ্ছে আপনি আপনার ফোনে সেলুলার ডাটা ব্যবহার করতে পারবেন পাশা পাশি সিম দিয়ে যা যা করা যায় সেগুলো করতে পারবেন, কিন্তু সিমটি হবে Virtual. ঠিক এই টেকনোলজি আমাদের সামনে আসতে একটু সময় লাগছে, তবে আপনি যদি পিছনের কথা একটু ভেবে বলেন, তাহলে অবশ্যই দেখবে পাবেন যে অদূর ভবিষ্যতে ফিজিক্যাল সিম কার্ড থাকবে না, যদিও একেবারে বিলুপ্ত হতে কিছু বছর বেশি সময় লাগবেই। সেটা দেশ/প্রযুক্তি ভেদে ভিন্ন হতেই পারে।

এবার আসি এসডি কার্ড(SD Card) নিয়ে,

SD Card কি আসলেই বিলুপ্ত হয়ে যাবে?

গোটা পৃথিবীতে বহুল ব্যবহৃত পোর্ট্যাবল স্টোরেজ হিসেবে ব্যবহৃত হয় SD কার্ড বা মেমোরি কার্ড। আমাদের ক্যামেরা বা মোবাইলে ব্যবহার করা হয় মেমোরি কার্ড। কিন্তু বর্তমানে আমরা অনেক ফোনে দেখতে পারছি কোনো কোনো ফোনে এসডি কার্ড ইন্সার্ট করার কোনো অপশন থাকছে না। এর পিছনে একটি কারন হচ্ছে,

ফোন গুলোতে বিল্টইন ভাবেই পর্যাপ্ত স্টোরেজ দেওয়া থাকে, যা গ্রাহকের ব্যবহারের চাহিদার থেকেও বেশী, তাই এখন ফোনের মধ্যে এসডি কার্ড ব্যবহারের প্রয়োজন কিছুটা কমে আসছে, আমরা আশা রাখতেই পারি যে, সেদিন বেশি দূরে নয়, যেদিন আমাদের মোবাইল ফোনে কোনো প্রকার আলাদা মেমোরি কার্ড লাগানোর দরকার পরবে না।

এখন অনেকেই প্রশ্ন করতে পারেন যে ক্যামেরার ক্ষেত্রে তো ঠিকই ব্যবহার করতে হচ্ছে এসডি কার্ড। তাহলে এসডি কার্ড/ মেমোরি কার্ড বিলুপ্ত হবে কি করে?

আপনার জন্য আমার উত্তর হলো, মোবাইলে যদি এই প্রযুক্তি আসতে পারে যেখানে এসডি কার্ডের প্রয়োজন হচ্ছে না, তাহলে ক্যামেরার ক্ষেত্রে কি সেই প্রযুক্তি আসতে পারে না?
একটা সময় কি আমরা ভাবতে পারতাম যে আমরা ভিডিও কল দিয়ে একজন অপরজনকে দেখে দেখে কথা বলতে পারবো? কিন্তু সেটি এখন নিত্যদিনের কাজ!

তাহলে আমরা তো বলতেই পারি যে কিছু দিন পরে থাকবে না কোনো সিম কার্ড বা মেমোরি কার্ড, যা থাকবে সকল কিছুই থাকবে ভার্চ্যুয়াল হিসেবে।

উপরের সকল কথা গুলোই আমার ক্ষুদ্র জ্ঞান থেকে বলেছি, এখানে ভুল থাকতে পারে, আশা করছি কোনো কিছু আপনার কাছে ভুল বা অসংগতিপূর্ন মনে হলে আমাকে ইনফর্ম করবেন। আমি আপনার ভুল ধরিয়ে দেওয়াটাকে সম্মান করি।

আর যদি ব্লগটি ভালো লাগে, তাহলে শেয়ার করে ফেলুন আপনার বন্ধুদের সাথে। থাকেই থাকুন। ধন্যবাদ

You May Also Like

About the Author: infotalkbdcom

Leave a Reply

Your email address will not be published.